কোয়ান্টামের একটা মন্ত্র আছে যেটা সবসময় আমাকে নারা দেয় সেটা হল-

সুস্থ দেহ প্রশান্ত মন, কর্ম ব্যস্ত সুখী জীবন

দেহ সুস্থ রাখতে শারীরিক ব্যায়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শরীরকে আরও সুন্দর ও আকর্ষণীয় করতে জিম সেন্টার গুলোর চাহিদা দিনদিন বেড়েই চলেছে। জিম সেন্টারগুলো মূলত পরিচালিত হয় মালিক কর্তৃক নির্ধারিত কোন ম্যানেজার অথবা ট্রেইনার দ্বারা। মালিক নিজে বসেন এমন জিম সেন্টারের সংখ্যা হাতে গোনা কয়েকটা হতে পারে।

প্রতিটি জিম সেন্টারগুলো মেম্বারশিপ  রেজিস্ট্রেশন ও মাসিক সাবস্ক্রিপশন বেসিসে পরিচালিত হয়। মোটামুটি  জিম সেন্টারের সাইজ ও পপুলারিটির ধরন অনুযায়ী ২০০ থেকে ১৫০০ পর্যন্ত মেম্বার হয়ে থাকে।

hasan.liveজিম সেন্টারগুলোর সমস্যা

  • প্রতি মাসে মেম্বারদের কাছ থেকে সাবস্ক্রিপশন বেসিস টাকা কালেকশন করতে হয়। জিম সেন্টারে পরিচালকদের এই কালেকশনে প্রায়ই হিমশিম খেতে হয়।
  • ওয়ার্কআউট প্ল্যান, ডায়েট প্ল্যানগুলি ট্র্যাক রাখার কোন ব্যবস্থা না থাকায় অনেক সময় জিমের ট্রেইনারদের বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়।
  •  ডিজিটাল এক্সেস কন্ট্রোলার না থাকায় একজন মেম্বার দিনে কয়বার কয়ঘণ্টা জিম সেন্টারে আসছেন তার কোন ট্র্যাক থাকছে না।
  • আগে থেকে মেম্বারদের সাবস্ক্রিপশন ফি আনার জন্য রিমাইন্ডারের ব্যবস্থা না থাকায়। ফিজিক্যালি অনেক সময় জিম সেন্টারে এসে বললে সেটা কার্যকারিতা কমে যাচ্ছে।
  • জিম সেন্টারগুলোতে নিউট্রিশন, এনার্জি ড্রিঙ্ক সহ ছোট ছোট ব্যায়মের যন্ত্রপাতি বিক্রি হয়ে থাকে। পণ্যগুলো বিক্রির আয় ব্যয়ের হিসাবগুলো সঠিক ভাবে ট্র্যাক রাখা কঠিন হয়ে পড়ছে। স্টকে কতগুলো কোন কোন পণ্য আছে সেটা বের করা সত্যিই অনেক কঠিন হয়ে পরে।
  • জিম সেন্টারের মালিকের অবর্তমানে জিম সেন্টারগুলো পরিচালনার দ্বায়িক্তে যারা থাকেন ডিজিটাল কোন সিকুরিটি না থাকায়  একটু আধটু দুর্নীতির আশ্রয় নিলেও কোন সমস্যায় পড়তে হয়  না থাকে।
  • খাতা পত্রের হিসাবে গরমিল করা সহজ কিন্তু সফটওয়্যারে সেটা প্রায় অসম্ভব। কারণ প্রতিটি খাতের ট্র্যাক রাখে সফটওয়্যার এবং গরমিল  এর যায়গাটা সহজেই ধরিয়ে দিতে পারে।

এছাড়া আরও বহুবিধ সমস্যায় পড়তে হয় জিম পরিচালকদের। এগুলো থেকে সমাধানের একটাই উপায় জিম ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার। 

জিম ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার কোথায় পাওয়া যাবে? 

জিম ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাই