আইটি উদ্যোক্তা ও পরামর্শক

আইটি সেক্টরে ২০১৩ সালে আমার প্রথম হাতেখড়ি হয়। সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রিতে আপডেট নতুন নতুন বিষয়সগুলো, সবসময় আমাকে আকৃষ্ট করেছে। যে কোন সফটওয়্যারের এক্সেস পাওয়ার পর সেটার সমস্ত ফিচারস/ফাংশন না দেখা পর্যন্ত আমার অভিযান চলতেই থাকে।

শুরুর দিকে এইচটিএমএল, সিএসএস দিয়ে প্রফেশনাল টেম্পেলেট বানিয়েছিলাম। সেই সময় থেকেই ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট কনসেপ্টের হাতে খড়ি হয়। কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস) যেমন ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা, মেজেন্টো, ওপেন কার্ট এ কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি কাজ করা হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে। ১২০+ এর অধিক সাইট তৈরি করেছি সে অনেক লম্বা এক ইতিহাস। এক সময় ওয়েবসাইট বানানো নেশায় পরিণীত হয়েছিল।

একজন আইটি পরামর্শক

তবে সবসময় আমি ডিজাইনে নতুনত্ব ও আধুনিকতার ছোঁয়া রেখেছি। জাভাস্ক্রিপ্ট, সি++, পিএইচপি, পাইথন, এএসপি ডট নেট সহ আরও বেশ কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এ আমার হাতে খড়ি হয়েছে। তবে প্রফেশনাল প্রোগ্রামার হিসাবে কাজ করার সুযোগ খুব কম পেয়েছি।

বর্তমান ট্রেন্ড অনুযায়ী কোন কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর চাহিদা বেশি। কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এ কোন ধরণের আপডেট আসছে, কোন প্রজেক্ট কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে বানালে ভালো হবে, এগুলো আমার দৈন্দিক কাজের অংশ। গুগল, ফেসবুক, মাইক্রোসফট সহ অন্য টেকনোলোজি জায়েন্টরা নতুন কি চমক দেখাতে যাচ্ছে বিশ্বকে সেগুলোর বিষয়ে আগাম আপডেট রাখা আমার হবি।

ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন, ওয়েব হোস্টিং, ভিপিএস হোস্টিং, এসএসএল সার্টিফিকেট, এগুলো তো প্রতিনিয়ত করতে হয়। ডাব্লিউ এইচ এম (WHM) এবং সি-প্যানেল সেটআপ এবং কনফিগার করতে হয় ক্লাইন্টের চাহিদা মোতাবেক।

ক্লাউড সার্ভার এটা হচ্ছে সবচেয়ে মজার শেখার যায়গা। এখানে আপনাকে একটা খালি বাড়ি দেওয়া হবে, ক্লাইন্টের চাহিদা অনুযায়ী বাড়িটি আপনাকে সাজিয়ে দিতে হবে। তবে এটা একটা সুমুদ্র এখানে শেখার কোন শেষ নেই। তবে আমার কাছে এই কাজটি খুব ইন্টারেস্টিং লাগে।

কোন একটা সফটওয়্যার তৈরির পূর্বে যে ওয়্যারফ্রেম বা এক ধরণের প্রোটোটাইপ বানাতে হয় সেটা তো ক্লাইন্টের প্রেসারে পড়ে শিখেছিলাম। সেই সময় ডেটাবেজের স্ট্রাকচার ডিজাইনটাও দেখে নিয়েছিলাম।

অ্যাডোবি এক্সডি সেটার পূর্ণতা দেয় এই টুলস এর মাধ্যমে আমি খুব সহজেই ক্লাইন্টের জন্য মোবাইল অ্যাপ ও ওয়েব এর জন্য প্রোটোটাইপ তৈরি করতে পারতাম। এটা ক্লাইন্টের কাছে কোন প্রোজেক্ট প্রেজেন্টেশনের ক্ষেত্রে খুব কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

ফটোশপ শেখার ইচ্ছা তেমন ছিল না। তবে প্রয়োজনের তাগিদে সেটাও শিখতে হয়। যেটা এখন সবসময় কম বেশি কাজে লাগছে। বিশেষ করে যখন ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ করি তখন এর প্রয়োজনীয়তাটা বেশি অনুভব করতে পারি।

ডিজাইনের জন্য অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটর, অ্যাডোবি ফটোশপ নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা কম নয়। তবে এর থেকে একটু ভিন্ন মজা এনে দিয়েছে ভিডিও এডিটিং ফিলমোরা দিয়ে হাতে খরি হয়। পরে এডোবি আফটার ইফেক্ট ও অ্যাডোবি প্রিমিয়ার প্রো শেখা এই সফটওয়্যারগুলোর বদলতে আমি ভিন্ন এক জগতে পা দেই সেটা হল ইউটিউব। তারপর ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করি এবং এর মাধ্যমে আমি যা শিখেছি তা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার মিশনে নেমে পরি।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, প্রোডাক্ট প্রোমোশন, ব্র্যান্ড প্রোমোশন, ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ করতে করতে এক সময় ফিজিক্যাল মার্কেটিং এ কাজ করা শুরু করি।

তখন বিভিন্ন ক্লাইন্ট এর সাথে সাক্ষাৎ করে ক্লাইন্টের বিজনেস সম্পর্কে ধারনা নেই, ক্লাইন্টের বিজনেস এর পিন পয়েন্টগুলো বোঝার চেষ্টা করি এবং সেই অনুসারে সফটওয়্যার সল্যুশন দিই। ক্লাইন্টের বিজনেস প্রবলেম গুলো শুনে সেটার সঠিক আইটি  পরামর্শ ও সল্যুশন দেওয়া আমার বর্তমান জব রেস্পন্সিবিলিটি।

বিভিন্ন বিজনেস রিকুয়ারমেন্ট এনালাইসিস ও সল্যুশন দিতে দিতে মাথার মধ্যে নতুন নতুন আইডিয়া আসতে থাকে। এটা মনে হয় আমার প্রফেশনের কারনে হয়। সত্যি কথা বলতে গেলে আমি আমার পেশাটাকে অনেক পছন্দ করি। আর আমার প্রত্যেকটি কাজে তার প্রতিফলন ঘটে।

প্রযুক্তিগত অভিজ্ঞতা

এইচটিএমএল 80
সি.এস.এস 80
ওয়ার্ডপ্রেস 70
উ-কমার্স অনলাইন শপ 75
পিএইচপি 40
এসকিউএল 30
সি-প্যানেল এবং ডাব্লিউ এইচ এম 50
ক্লাউড সার্ভার 20

ক্রিয়েটিভ অভিজ্ঞতা

অ্যাডোবি ফটোশপ 70
অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটর 60
অ্যাডোবি এক্সডি 65
এডোবি আফটার ইফেক্ট 55
অ্যাডোবি প্রিমিয়ার প্রো 70
ফিলমোরা 60

অন্যান্য অভিজ্ঞতা

অডো ইআরপি 50
সফটওয়্যার টেস্টিং 40
রিকুয়ারমেন্ট এনালাইসিস 55
প্রজেক্ট প্রপোজাল রাইটিং 40
ডাটা এনালাইসিস 30
আইটি কনসালটেন্সি 60